কৃষ্ণনগর (কালিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ ঘটনাটি ঘটেছে ২৭ মে বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক ১২.৩০ মিনিটের দিকে কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামের মৃত হযরত আলী মোল্লার বিধবা মেয়ে হাসিনা বেগমের বাড়িতে ।

 

সরেজমিনে ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর অভিযোগ কারী হাসিনা বেগম জানান তার এক মাত্র মেয়ে হিরা সুলতানার সাথে শরীয়ত সম্মতভাবে বিবাহ হয় সাতক্ষীরা পিটিআই মোড় সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা মুসা কারিগরের পুত্র মনিরুল এর সাথে, বিবাহের পর থেকে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে তার উপর নির্যাতন চালাতে থাকে নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে সে চলে আসে বাপের বাড়িতে ।

 

এর মধ্যে গত ৮ মাস পূর্বে তার গর্ভে জন্ম গ্রহণ করে এক ফুটফুটে পুত্র সন্তান । সন্তানের ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে পিতামাতা কে ত্যাগ করে হিরা সুলতানার স্বামী চলে আসে শ্বশুর বাড়িতে । এর পরেও তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন কৌশলে তার স্বামীকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন ভাবে চেষ্টা চালাতে থাকে ।

 

সর্বশেষ চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় তার মামা শ্বশুর আশাশুনি থানার নছিমাবাদ গ্রামের গোলাপ সরদারের পুত্র সোহরাব হোসেন সুকৌশলে গত ২৭ তারিখ দিবাগত রাতে পেট্রোল দিয়ে তার ঘরে আগুন দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায় বলে জানায় ভুক্তভোগী। উক্ত বসত ঘরে নগদ ১০ হাজার টাকাসহ বিভিন্ন মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে যার আনুমানিক মূল্য ২ লক্ষ্য টাকার মত ।

 

এ ব্যাপারে হিরা সুলতানার স্বামীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান আমার মামার সম্পর্কে আমার শ্বশুরবাড়ির লোকজন যে অভিযোগ দিয়েছে তাহা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন আমার মামা এধরনের জঘন্য ঘটনা ঘটাতে পারে না।

 

আমার মামা কে ফাসানোর জন্য ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে, হিরা সুলতানার মামা শ্বশুর সোহরাব এর কাছে ঘটনার সত্যতা জানতে চাইলে তিনি বলেন এই ঘটনা সম্পর্কে আমি কিছুই জানি না এবং এর সাথে কোন অবস্থায় আমি জড়িত না।

SHARE