আজ বিশ্ব গাধা দিবস

অনলাইন ডেস্ক: কেউ ভুল করলে বা বোকামি করলে তাকে আমরা গাধার সঙ্গে তুলনা করি। কিন্তু গাধা কি আসলেই বোকা? গাধা বোকা হোক বা চালাক হোক- সে উত্তর জানা না থাকলেও আজ প্রাণীটিকে ভালোবাসার দিন, সম্মান জানানোর দিন।

আজ বিশ্ব গাধা দিবস। ২০১৮ সালে প্রথম এই দিবস পালিত হয়। এরপর থেকে প্রতি বছরের ৮ মে সার্বজনীনভাবে পালন করা হচ্ছে বিশ্ব গাধা দিবস। এই দিবসের শুরু করেন বিজ্ঞানী ও মরুভূমির প্রাণী গবেষক আর্ক রাজিক।

আমাদের জীবনে গাধা প্রাচীনকাল থেকে যে প্রভাব রেখেছে ও রাখছে তা অকল্পনীয়। বোঝা টানা থেকে শুরু করে গাধার চামড়ায় থাকা আঠা দিয়ে ওষুধ তৈরি- নানাভাবে প্রাণীটি মানুষের কেবল উপকারই করে গিয়েছে। গাধার সংখ্যা সবচেয়ে বেশি এখন চীনে।

তৃতীয় অবস্থানে আছে পাকিস্তান। সেখানে গাধার চাহিদা অনেক বেশি হলেও খুব দ্রুত এই প্রাণীটির রয়েছে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা। তাই হাসি-ঠাট্টা পাশে রেখে এই উপকারী প্রাণীর প্রতি ভালোবাসা প্রকাশের উদ্দেশ্য নিয়েই যাত্রা শুরু হয় বিশ্ব গাধা দিবসের। শুরুটা খুব ছোট আকারে ফেসবুকে হলেও সেটার স্বীকৃতি এখন মিলেছে বিশ্বজুড়ে।

উল্লেখ্য, গাধা অন্যান্য প্রাণীর চেয়ে অনেক বেশি পরিমাণে পরিশ্রম করতে পারে। মাইলের পর মাইল বোঝা টেনে নেওয়া গাধা সাধারণত বাঁচে ৫০-৫৪ বছর। আর গতির দিক দিয়ে প্রতি ঘন্টায় পাড়ি দেয় প্রায় ৩১ মাইল।
খবর ন্যাশনাল টুডের