তালায় প্রতিমা তৈরীতে ব্যস্ত সময় পার করছে কারিগররা

নিজস্ব প্রতিনিধি : আগামী ১৪ অক্টোবর মহালয়ার মধ্যে দিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসবের আমেজ ছড়িয়ে পড়বে। ১৪ অক্টোবর মহা পঞ্চমী,২০ অক্টোবর ষষ্ঠী, ২১ অক্টোরর সপ্তমী, ২২ অক্টোবর অষ্টমী, ২৩ অক্টোবর নবমী ২৪ অক্টোবর বিজয়া দশমীর মধ্যে দিয়ে ৫দিনব্যাপী হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা পরিসমাপ্তি ঘটবে। ইতোমধ্যে পাটকেলঘাটা থানা ও তালা থানার ১৯৫টি পূজা মন্ডপে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃৎ শিল্পীরা।

এছাড়া দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দেবী তৈরীর কারিগররা এসেছেন মূর্তি তৈরী করার কাজে। দুর্গাপূজা,সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান উৎসব হিসেবে পালন করা হয়ে থাকে। বড় ছোটো সকলের জন্য এই পূজা খুবই আনন্দের হয়।ঢাকের তালে আর শিউলীর মিষ্টি গন্ধে পুরো বাংলা দুর্গা পূজার হওয়া বইতে থাকে। মহালয়া থেকে শুরু করে পঞ্চমী, ষষ্ঠী, সপ্তমী, অষ্টমী, নবমী, বিজয়া দশমীতে মন্ডপে মন্ডপে দুর্গাপূজার জমজমাট আর আনন্দে মেতে উঠতে দেখা যায়। মা দুর্গাপূজার সাথে সাথে একই মঞ্চে মা লক্ষ্মী, মা সরস্বতী, শ্রী গণেশ এবং শ্রী কার্তিকসহ দেবী দেবতারও পূজা করা হয়। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা।

কাঁশফোটা শরতের শারদীয় দূর্গোৎসবকে সামনে রেখে মন্দিরগুলোতে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি। প্রতিমা শিল্পীর কল্পনায় দেবী দুর্গার অনিন্দ্য সুন্দর রূপ দিতে সকাল থেকে শুরু করে রাতভর চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। ইতোমধ্যে প্রতিমার কাঠামোর মাটির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এরপর শুরু হবে রং ও সাজসজ্জার কাজ। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসবকে ঘিরে মন্দিরগুলোতে আগাম শারদীয় উৎসবের আমেজ চলছে। উঁচু-নিচুর বিভেদ ভুলে সমাজের সকল স্তরের মানুষকে একত্রে করে মহা-মিলন হয় বলে এ পূজাকে বলা হয় সার্বজনীন পূজা।

আর শরৎকালে হয় বলে বলা হয় শারদীয় উৎসব। আর দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে তালা উপজেলায় ১৯৫টি মন্ডপের পূজা উদযাপন কমিটি ব্যস্ত সময় পার করছে। কোন কোন মন্ডপে প্রতিমা তৈরির পাশাপাশি সাজসজ্জার প্রস্তুতিও চলছে। পাশাপাশি প্রতিমা শিল্পীরাও মহাব্যস্ত প্রতিমা তৈরিতে। সেই সাথে ব্যস্ত কারিগররাও। মূর্তি গড়া শেষে কারিগরদের নিপুন হাতের ছোঁয়া রং এ ফুটিয়ে তোলা হবে প্রতিমা। দেবীকে স্বাগত জানাতে সর্বত্র আনন্দঘন পরিবেশ বিরাজ করছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের শিশু, নারী-পুরুষসহ সব বয়সী মানুষ এ শারদীয় উৎসবকে সার্থক করতে প্রহর গুনছে।

সব মিলিয়ে ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে প্রতিটি পূজামন্ডপে। তালা উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সহ-সভাপতি নারায়ন চন্দ্র মজুমদার জানান, শান্তিপূর্ণভাবে পূজা অনুষ্ঠানের জন্য ইতোমধ্যেই পুলিশি তদারকি শুরু হয়েছে। প্রতিটি পূজা মন্ডপে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হচ্ছে। এবার পাটকেলঘাটা ও তালা থানা মিলে মোট ১৯৫টি পূজামন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

এরমধ্যে পাটকেলঘাটার থানার ৫টি ইউনিয়ন ধানদিয়া-১৭, নগরঘাটা-৯, সরুলিয়া-২১, কুমিরা-১৪, খলিষখালী-২২ মোট ৮৩ টি। এছাড়া তালার তেতুলিয়া ইউনিয়নে-১০, তালা-১৯, ইসলামকাটী-২১, মাগুরা-১২, খলিলনগর-২৩, খেশরা-১৪, জালালপুর-১৩। তালা উপজেলা পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি তালা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার জানান, শান্তিপুর্নভাবে পুজা পালনের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।