• রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১১:২৩

ফেব্রুয়ারির সেরা জয়সওয়াল

প্রতিনিধি: / ৬৮ দেখেছেন:
পাবলিশ: মঙ্গলবার, ১২ মার্চ, ২০২৪

স্পোর্টস: ইংল্যান্ডের বিপক্ষে স্বপ্নের মতো এক সিরিজ কাটানো ইয়াশাসভি জয়সওয়াল এবার পেলেন দারুণ এক স্বীকৃতি। সময়ের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন কেন উইলিয়ামসন ও শ্রীলঙ্কার পাথুম নিসাঙ্কাকে পেছনে ফেলে ফেব্রুয়ারি মাসের সেরা পুরুষ ক্রিকেটার নির্বাচিত হলেন ভারতের তরুণ এই ব্যাটসম্যান। এই সময়ে নারীদের সেরা অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার অ্যানাবেল সাদারল্যান্ড। গত মাসের সেরা পুরুষ ও নারী ক্রিকেটারের নাম মঙ্গলবার ঘোষণা করে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্তা সংস্থা আইসিসি। অস্ট্রেলিয়ার পঞ্চম নারী ক্রিকেটার হিসেবে ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দা মান্থ’ এর পুরস্কার জিতলেন সাদারল্যান্ড। পেছনে ফেললেন তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের এশা ওঝা ও কাভিশা এগোদাগেকে। এই স্বীকৃতি জেতা অস্ট্রেলিয়া অন্য চারজন হলেন-অ্যালিসা হিলি, র‌্যাচেল হেইন্স, তাহলিয়া ম্যাকগ্রা ও অ্যাশলি গার্ডনার। জয়সওয়াল ফেব্রæয়ারিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিনটি টেস্ট খেলেন। সবগুলো ম্যাচেই হাসে তার ব্যাট, দলও পায় জয়। মাস জুড়ে ১১২ গড়ে ৫৬০ রান করেন বাঁহাতি এই ওপেনার। টানা দুই ম্যাচে উপহার দেন ডাবল সেঞ্চুরি। আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের পসরা মেলে ধরে মারেন ২০টি ছক্কা। বিশাখাপাতœামে দ্বিতীয় টেস্টে জয়সওয়ালের ব্যাট থেকে আসে ২০৯ রানের চমৎকার এক ইনিংস। পরের ম্যাচে তিনি নিজেকে মেলে ধরেন আরেকবার। রাজকোট টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে উপহার দেন আরেকটি ডাবল সেঞ্চুরি, খেলেন অপরাজিত ২১৪ রানের ইনিংস। রাজকোটে ২১৪ রানের ইনিংসটি খেলার পথে কিছু কীর্তিও গড়েন জয়সওয়াল। ১২টি ছক্কা মেরে টেস্টের এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ছক্কার রেকর্ডে বসেন ওয়াসিম আকরামের পাশে। ভিনোদ কাম্বলি ও ভিরাট কোহলির পর ভারতের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে টানা দুই টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করেন জয়সওয়াল। আর কাম্বলি ও স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের পর কম বয়সে টেস্টে একাধিকবার দুইশ ছোঁয়ার কীর্তিও গড়েন তিনি। মাসের সেরার পুরস্কার জিতে উচ্ছ¡সিত ২২ বছর বয়সী জয়সওয়াল বললেন, এই স্বীকৃতি আরও পেতে চান তিনি। “আইসিসির পুরস্কার পেয়ে আমি সত্যিই অনেক খুশি এবং আশা করি ভবিষ্যতে আরও জিততে পারব। এটা আমার সেরা সময়গুলোর একটি, আর এটি ছিল আমার প্রথম পাঁচ ম্যাচের সিরিজ।” “আমি যেভাবে খেলেছি ও যেভাবে সবকিছু হয়েছে এবং আমরা ৪-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছি; সবকিছু সত্যিই উপভোগ করেছি। আমার সব সতীর্থদের সঙ্গে এটা অবিশ্বাস্য অভিজ্ঞতা ছিল এবং আমি সত্যিই সময়টা উপভোগ করেছি।” দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের পারফরম্যান্স দিয়ে মাস সেরার লড়াইয়ে জায়গা করে নিয়েই বাজিমাত করলেন সাদারল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়ান এই অলরাউন্ডার পার্থে ২১০ রানের ইনিংস খেলার পাশাপাশি পেস বোলিংয়ে নেন পাঁচ উইকেট। ইনিংস ও ২৮৪ রানে জয়ের ম্যাচে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও জেতেন তিনি। অবশ্য ফেব্রæয়ারিতে শুধু ওই একটি টেস্টই খেলেননি সাদারল্যান্ড। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিনটি ওয়ানডেও খেলেন তিনি। যদিও সাদা বলের লড়াইয়ের নিজেকে সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি। দুই ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেয়ে করেন স্রেফ ১৯ রান, উইকেট নেন দুটি। গত মাসে ৪ ম্যাচ খেলে তার শিকার মোট ৭টি, রান করেন ২২৯। আইসিসির ভোটিং একাডেমি ও ক্রিকেট সমর্থকদের যৌথ ভোটে নির্বাচন করা হয় মাসের সেরা দুই ক্রিকেটার। ভোটিং একাডেমিতে আছেন জ্যেষ্ঠ ক্রীড়া সাংবাদিক, সাবেক ক্রিকেটার ও ধারাভাষ্যকাররা। তারা ভোট দেন ই-মেইলে, আইসিসির নিবন্ধিত সমর্থকদের ভোট দিতে হয় আইসিসির ওয়েবসাইটে। সেরার রায়ে ভোটিং একাডেমির ভোট বিবেচনায় নেওয়া হয় শতকরা ৯০ ভাগ, সমর্থকদের ভোট বাকি ১০ ভাগ।


এই বিভাগের আরো খবর
https://www.kaabait.com