(২৪) এর সাথে একই উপজেলার গড়ভাঙ্গা গ্রামের আবুল কালাম আজাদের মেয়ে

কেশবপুরে স্বামীর ছুরিকাঘাতে আহত মেরিন (২২) নামে এক গৃহবধূর চিকিৎসাধীন অবস্থায় যশোর জেনারেল
হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে।(১১ মে) বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে হাসপাতালে মহিলা সার্জারি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন
অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।গৃহবধূর মামা রফিকুল ইসলাম অভিযোগ করে জানায়,গত দুই বছর আগে করোনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেলে গৃহবধূর স্বামী রিপন হোসেন গ্রামের বাড়িতে গিয়ে মেরিনের সাথে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে।

 

 

কেশবপুর উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের মোস্তফা গাজীর ছেলে যশোর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র
রিপন হোসেন(২৪) এর সাথে একই উপজেলার গড়ভাঙ্গা গ্রামের আবুল কালাম আজাদের মেয়ে মেরিন
খাতুন(২২) বিয়ে হয়।বিবাহর কিছুদিন পর থেকে রিপন তার স্ত্রী মেরিনকে কারনে-অকারনে মারধর
করতো।পারিবারিক ভাবে বিষয়টি মিমাংসা করার চেষ্টা করেও ব্যার্থ হয় মেরিনের স্বজনরা।সম্প্রতি গত ৩ মে ইদুল ফিতরের দিন দুপুরের দিকে রিপন নেশা করে বাড়িতে ফিরে মেরিনের সাথে কোমলপানীয় খাওয়া নিয়ে তাদের গন্ডগোল হয়।

 

 

 

এ সময় কথা-কাটাকাটির এক পর্যায়ে মেরিনকে তার স্বামী ছুরি দিয়ে পেটে আঘাত করে। এতে মেরিন গুরুতর
আহত হলে প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে প্রথমে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার দুপুরে মেরিনের মৃত্যু হয়।মেরিনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।এ ব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বোরহান উদ্দীন বলেন, অভিযোগ পেলে মামলা নেওয়া হবে।

SHARE