মোস্তফাফিরোজ এর বেখবরঃ————-

নির্বাচনী ট্রেন যতো সামনে এগিয়ে যাচ্ছে ততই যেনো রেলপথটা বেঁকে যাচ্ছে।
ফলে, এর গতি কমে যাচ্ছে। নির্বাচনকালীন সরকার রুটিন কাজ করবে। আর নির্বাচন কমিশন বিকল্প সরকারের রুপ ধারণ করে প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্তৃত্ব নিতে থাকবে।

এমনটা হবার কথা থাকলেও বাস্তবে তার লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। এই কারণে বিরোধী পক্ষ থেকে ধর পাকড়, মামলা ও সরকারের হস্তক্ষেপ বিষয়ে নানা অভিযোগ করে যাচ্ছে।

তার মানে, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের থেকেও সাংবিধানিক দলীয় সরকার খুবই আদর্শিক একটি বিষয় তেমনটা প্রমাণিত হচ্ছে না।

এজন্য সরকার ও নির্বাচন কমিশনের আরো সংযত আচরণ করা দরকার। বিগত সময়ে কয়েকটা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ভিতরে যেটা প্রসংশিত সেটা অনুসরণ করা যেতে পারে।

নতুবা সংলাপ আয়োজন করা ও নিরপেক্ষতার প্রতিশ্রুতি দেয়ার মধ্য দিয়ে সুন্দর একটি নির্বাচনী পরিবেশ ভেস্তে যেতে পারে।

SHARE