• বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ১২:৩৯

চিংড়ি ঘের জবর দখল ও বাসাবাড়ী ভাংচুরের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

প্রতিনিধি: / ৮১ দেখেছেন:
পাবলিশ: মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি: পাইকগাছায় প্রতিপক্ষদের বিরুদ্ধে চিংড়ি ঘের জবর দখল, মারপিট ও বাসা
বাড়ী ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করার অভিযোগ উঠেছে। এমন অভিযোগ এনে
পাইকগাছা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছে পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড
গোপালপুর গ্রামের সহিল উদ্দীন মিস্ত্রীর স্ত্রী হাচেনা বিবি। তিনি সংবাদ
সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমি ভ‚মিহীন কৃষক হিসেবে ১৯৯২ সালে
উপজেলার শিবেরবাটী মৌজায় এক একর সম্পত্তি বন্দোবস্ত প্রাপ্ত হয়ে দীর্ঘদিন
ভোগ দখলে থাকি। চলমান জরিপে দখল মতে আমার নামে বিআরএস ২০০ খতিয়ানে
বিআরএস ২৬৮ দাগে উক্ত সম্পত্তি রেকর্ড হয়ে চ‚ড়ান্ত প্রকাশিত হয়েছে। চলতি
সন পর্যন্ত উক্ত জমির সরকারি কর খাজনা পরিশোধ রয়েছে। ইতোপূর্বে উক্ত সম্পত্তি
সাবেক কাউন্সিলর মনিরুল ইসলাম মন্টু সহ অনেকেই জবর দখল করার চেষ্টা করেন।
তখন তাদের বিরুদ্ধে সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে নিষেধাজ্ঞা মামলা করি।
মামলাটি আদালতে চলমান রয়েছে। মামলায় বিবাদীদের বিরুদ্ধে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা
রয়েছে। এদিকে চলতি বছর আমি ও আমার পুত্র আজিবর রহমান উক্ত সম্পত্তিতে
দুইটি বাসাবাড়ী নির্মাণ পূর্বক লিজ ঘেরে পোনা মাছ ছাড়ি।বর্তমানে
মাছ গুলো ধরার উপযোগী হয়েছে। এ অবস্থায় প্রতিপক্ষ গোপালপুর গ্রামের মঈনুল
ইসলাম বাবু, বুলবুল গোলদার, রিপন গোলদার, শরিফুল ইসলাম, শামীম গাজী, সালাম
সরদার, ফারুক, কামাল সরদার ও সরল গ্রামের ইমরান গাজী ২০ ফেব্রæয়ারি লিজ ঘেরে
অনোধিকার প্রবেশ করে বাসাবাড়ী ভাংচুর করার চেষ্টা করে। এ সময় আমার পুত্র ও
পুত্রবধু বাঁধা দিলে তাদেরকে বেদম মারপিট করে গুরুতর আহত করে। এ সময় তারা
ঘেরের বাসাবাড়ী ভাংচুর ও মাছ ধরে নিয়ে যায়। এতে প্রায় দুই লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়।
এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট
কর্তৃপক্ষের আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেন ভুক্তভোগী নারী।


এই বিভাগের আরো খবর
https://www.kaabait.com