• বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০৮:১০

শরিফুল রাজের ‘দেয়ালের দেশ’ ঈদে মুক্তি পাবে

প্রতিনিধি: / ১১৮ দেখেছেন:
পাবলিশ: শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

বিনোদন: ‘পেশাগত কারণে অনেক স্ক্রিপ্টই তো পড়তে হয়। কিš‘ দেয়ালের দেশ সিনেমাটির স্ক্রিপ্টে এত ডিটেইলস, এত যত্ন স্পষ্ট যে, আমি এই সিনেমার অংশ হতে বাধ্য হয়েছি। পর্দায় আমাদের কেমিস্ট্রি ফুটিয়ে তোলার জন্য আমি, বুবলীসহ টিমের সবাই মিলে শুটিংয়ে যাওয়ার আগে রিহার্সেল করেছি। চরিত্রের সঙ্গে মানিয়ে নিতে চুল, দাঁড়ি বড় করার সঙ্গে সঙ্গে অনেকটা ওজন আমাকে কমাতে হয়েছে। আমার বিশ্বাস আমাদের এই চেষ্টার ফসল দর্শকের জন্য উপভোগ্য হবে।’-নিজের নতুন সিনেমা সম্পর্কে জানতে চাইলে কথাগুলো বলেন অভিনেতা শরীফুল রাজ। এরইমধ্যে ‘পরাণ’, ‘দামাল’সহ বেশ কয়েকটি প্রশংসিত সিনেমা নিজের ঝুলিতে জমা করেছেন রাজ। নতুন এই সিনেমাটিও দারুণ প্রশংসা কুড়াবে বলে মনে করছেন এই অভিনেতা। গত বছরের শেষাংশে প্রকাশ করা সিনেমাটির ফার্স্টলুক পোস্টার বেশ কৌতূহল তৈরি করে। যেখানে দেখা যায়, হিমাগারে পাটাতনে বেরিয়ে আছে শবনম বুবলীর লাশ। তার দিকে তাকিয়ে হতভম্ব হয়ে বসে আছেন শরীফুল রাজ। তবে সিনেমাটি কবে পর্দায় আসবে এ নিয়ে কোনো খবর ছিল না। এবার সেই অপেক্ষার পালাও শেষ হতে যা”েছ। আসছে ঈদে পর্দায় আসবে সিনেমাটি। এরইমধ্যে সেন্সর বোর্ডের সদস্যদের ভ‚য়সী প্রশংসাসহ ছাড়পত্র পেয়েছে ‘দেয়ালের দেশ’। গতকাল সিনেমাটির দ্বিতীয় পোস্টার প্রকাশের মাধ্যমে মুক্তির তারিখও জানানো হয়েছে। যদিও নতুন এই পোস্টারেও খানিকটা রহস্য রেখেছেন নির্মাতা মিশুক মনির। ঠিক সন্ধ্যে নামার মুখে শবনম বুবলী ও শরীফুল রাজ বসে আছে সমান্তরালে। যাতে পুরোপুরি নয়, অর্ধেক শরীর দেখানো হয়েছে। পরনে লাল টকটকে শাড়ি, খোপায় ঝুলে আছে বেলী ফুলের মালা, হুইল চেয়ারে বসে আছেন বুবলী। অপরপ্রান্তে রাজ। কিছুটা বিভাগী সে। চোখ-মুখে হাহাকার আর উদাসীনতা স্পষ্ট! এদিকে এই সিনেমাটির মাধ্যমে প্রথমবারের মতো রাজ-বুবলীকে একসঙ্গে পর্দায় দেখতে যা”েছন দর্শকরা। সিনেমাটি পরিচালনার পাশাপাশি কাহিনি ও চিত্রনাট্য লিখেছেন মিশুক মনির। তিনি বলেন, ‘অনুদানের সিনেমা নিয়ে এক ধরনের গত্বাঁধা চিন্তা আছে। সেসবের বাইরে দুর্দান্ত গল্প বলার চেষ্টা আমরা করেছি দেয়ালের দেশ’ সিনেমায়। একটা ভালো টিম ওয়ার্কের ছাপ সিনেমাটিতে দেখতে পাবেন দর্শকরা।’ বুবলী বলেন, ‘গল্প পড়েই ভীষণ ভালো লেগেছিল। আমরা প্রায়ই বলি ভিন্ন রকম গল্প, ভিন্ন ধরনের চরিত্র। কিš‘ অনেক সময় পর্দায় সেই বিষয়টা পরিষ্কার বোঝা যায় না। তবে এ সিনেমাটি ব্যতিক্রম। এর গল্পটা আসলেই ভিন্ন আঙ্গিকের। এ ধরনের চরিত্রে এর আগে আমার কাজ করা হয়নি। বিশেষ করে আমার জন্য এই ছবিতে অভিনয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া কঠিন ছিল। কারণ তখনও অবধি আমি ফুল কমার্শিয়াল ছবির নায়িকা। আর এই ছবিতে আমাকে নায়িকা নয় চরিত্র হয়ে উঠতে হবে এবং সেটাকে বিশ্বাসযোগ্য করতে হবে। সে ব্যাপারে বিশেষ করে আমার পরিচালক এবং আমার সহশিল্পীরাও দারুণভাবে হেল্প করেছে। সব অভিনয়শিল্পী দারুণ অভিনয় করেছেন এই সিনেমায়। নির্মাতাও পূর্ণ সততা নিয়ে বানিয়েছেন সিনেমাটি। আরেকটি বিষয় হ”েছ, অনুদানের সিনেমা নিয়ে যে ট্যাবু সৃষ্টি হয়েছে, সেটা ভেঙে দেবে দেয়ালের দেশ।’ সিনেমাটিতে রাজ-বুবলী ছাড়াও অভিনয় করেছেন আজিজুল হাকিম, সাবেরী আলম, স্বাগতা, শাহাদাত হোসেন প্রমুখ।


এই বিভাগের আরো খবর
https://www.kaabait.com