আজিজুর রহমান, কেশবপুর (যশোর):
কেশবপুরে রহিম দফাদার ওরফে পাগলা রহিম নামের এক ভন্ড ফকিরের প্রতারণার শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ বলে অভিযোগ উঠেছে। তার বাড়ি উপজেলার রাজনগর-বাঁকাবরশী গ্রামে। সে দীর্ঘদিন ধরে মানুষের সাথে প্রতারণা করে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা।

 

এলাকাবাসী জানায়, এই পাগলা রহিম নিজেকে কখনো কবিরাজ, কখনো ফকির, কখনো পাগলা পীর পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছে। তার আসল ব্যবসা হলো প্রতারণার মাধ্যমে সাধারণ মানুষের কাছে পাথর বা পাথরের আংটির বিক্রি করা।

 

প্রভাবশালীদের নাম ভাঙ্গিয়ে এই ভন্ড কবিরাজ বহাল তবিয়তে মানুষকে জিম্মি করে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা। নামে-বেনামে গয়েছে সম্পদের পাহাড়। ২ টাকার পাথর বা পাথরের আংটি আজমীর শরীফ ও কোহেকাফের পাথর পরিচয় দিয়ে দুই হাজার টাকা থেকে শুরু করে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নিচ্ছে। তাছাড়া এই ভন্ড কবিরাজ পাগলা রহিম নিজেকে পাগলাপীর পরিচয় দিয়ে প্রতি বছরের পহেলা জ্যৈষ্ঠ বাড়িতে উরুস অনুষ্ঠানের নামে সমাজ বিরোধী কর্মকান্ড করে আসছে।

 

এলাকাবাসী ও আলেম সমাজ পাগলা রহিম নামধারী ভন্ড পীরকে গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। পাগলা রহিমের বক্তব্য নেওয়ার জন্য তার সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে না পারায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

SHARE